রবিবার, জুলাই ২৫, ২০২১

আমি একাই একশ, পারলে সামনে আয়: ছাত্রলীগ সভাপতি

ভাস্কর্য ভাঙচুরকারীদের উদ্দেশে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেছেন, ‘রাতের আঁধারে তোরা জাতির পিতার ভাস্কর্যে আঘাত হানবি! পারলে সামনে আয়। দেখব তোরা কত পারিস। তোদের মোকাবিলায় আমি ছাত্রলীগ সভাপতি একাই একশ।’

কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে শনিবার (৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আয়োজিত এক বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, ‘যারা একাত্তর সালে বাংলাদেশকে স্বীকার করেনি। যারা পাকিস্তানিদের সঙ্গে রাজাকারি করেছে। সেই পাকিস্তানের পেতাত্মারা আজকের স্থিতিশীল বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য রাতের অন্ধকারে চোরের মতো বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের অবমাননা করেছে।’

ভাস্কর্য ভাঙচুরকারীদের উদ্দেশে আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ‘আপনারা যদি রাতের আঁধারে চোরের মতো এসে আমাদের জাতির পিতার ভাস্কর্যে আঘাত হানেন এই চোরকে আমরা কিছু বলব না। দিনের আলোকে আমাদের সামনে আসেন। আমরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সবসময় রাজপথে আছি, মাঠে আছি। কান ধরে ওঠবস করিয়ে পাকিস্তানিদের দেশছাড়া করেছি। এখন আপনাদের কানে ধরে ওঠবস করানোর সময় এসেছে।’

মামুনুল হকের উদ্দেশে ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, ‘মিছিল করেন আবার দৌড়িয়ে পালান। আমাদের মাদরাসা ভাইদের কী শিক্ষা দিচ্ছেন? ধর্মের অপব্যাখ্যা করে আপনারা কী বোঝাতে চান? জাতির পিতার উপহার দেয়া এই বাংলাদেশকে নিয়ে যদি আপনারা অরাজকতা করার চেষ্টা করেন। তাহলে কানধরে ওঠবস করে কিন্তু দিশা পাবেন না। একজনেরও কিন্তু পিঠের চামড়া থাকবে না।’

বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে আগামীকাল রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় সারাদেশের সকল ইউনিটকে একযোগে বিক্ষোভ করার নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

বিক্ষোভ সমাবেশে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মাজহারুল ইসলাম শামীম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরিফুজ্জামান আল ইমরান, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজিম উদ্দীন, উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক তিলোত্তমা শিকদার, ফরিদা পারভিনসহ কেন্দ্রীয়, ঢাক বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

spot_imgspot_img

আরও