মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৬, ২০২১

কাদিয়ানীরা দেশকে অস্থিতিশীল করতে ষড়যন্ত্র করছে : আল্লামা নুরুল ইসলাম

কাদিয়ানী সম্প্রদায় দেশকে অস্থিতিশীল করতে ষড়যন্ত্র করছে বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশ-এর সভাপতি আল্লামা নুরুল ইসলাম।

সোমবার (২৩ আগস্ট) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, দেশের পরিস্থিতি ঘোলাটে করার জন্য নতুন করে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে কাদিয়ানী সম্প্রদায়। তারা দেশের শীর্ষ আলেম-উলামাদের থেকে শুরু করে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বশীলদের চিঠির মাধ্যমে কাদিয়ানী হতে আহ্বান জানাচ্ছে। এসব কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে তারা মূলত দেশে বিশৃঙ্খলা তৈরী করার অপচেষ্টা করে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই, কাদিয়ানীদের এসব ষড়যন্ত্র দ্রুত থামাতে হবে। তারা এসব অপকর্মের মাধ্যমে সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি করে দেশের মধ্যে একটা অরাজকতার পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায়। তাদের বিরুদ্ধে যদি দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া না হয়, তাহলে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া কঠিন থেকে কঠিনতর হওয়ার আশংকা রয়েছে। কারণ দেশের মুসলমানরা কোনোভাবেই খতমে নবুওয়াতকে অস্বীকারকারী গোস্তাখে রাসুলদের অপতৎপরতা মেনে নেবে না।

আল্লামা নুরুল ইসলাম বলেন, কাদিয়ানী সম্প্রদায় সুকৌশলে খতমে নবুওয়াতের আন্দোলনকে রাজনৈতিক রূপ দেওয়ার চেষ্টা করে থাকে। তারা খতমে নবুওয়াতের মত নির্ভেজাল একটা ঈমানী আন্দোলনকে রাজনৈতিক আন্দোলন বলে অপপ্রচার চালায়। এ থেকেও সরকারকে সতর্ক থাকতে হবে। কারণ খতমে নবুওয়াতের ইস্যু কোনও দলীয় বা রাজনৈতিক ইস্যু নয়। এটির সম্পর্ক সরাসরি ঈমানের সাথে। খতমে নবুওয়াতকে যে অস্বীকার করবে, সে মুসলিম থাকতে পারে না। কোনও মুসলিমের পক্ষে খতমে নবুওয়াতের বিরোধিতা করা সম্ভব নয়। আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশ সূচনালগ্ন থেকে সম্পূর্ণ অরাজনৈতিকভাবে এই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। যতদিন এই দেশে কাদিয়ানদের অমুসলিম ঘোষণা করা না হবে ও কাদিয়ানীদের অপতৎপরতা বন্ধ না হবে, ততদিন এই সংগঠন নিয়মতান্ত্রিকভাবে কাজ করে যাবে ইনশা আল্লাহ।

তিনি সরকারকে দ্রুত সংসদে আইন পাসের মাধ্যমে পৃথিবীর অন্যান্য মুসলিম রাষ্ট্রের ন্যায় কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণা করতে জোর দাবি জানান।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img