বুধবার, মে ২৫, ২০২২

কুরবানীর ছুরি নয়, দলীয় ক্যাডারদের হাতে থাকা অস্ত্র উদ্ধার করুন: খেলাফত আন্দোলন

গত বৃহস্প‌তিবার (১ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর পুরান ঢাকাস্থ লালবাগ জা‌মেয়া কোরআনিয়া আরা‌বিয়া মাদরাসা ও চকবাজারের ইসলামবাগ জা‌মেয়া ইসলামিয়া মাদরাসা থে‌কে কোরবানির পশু জবাইয়ের কা‌জে ব্যবহৃত ৬০৩টি ছু‌রি নিয়ে গেছে পুলিশ।

শুক্রবার (২ এপ্রিল) এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ মাধ্যমে এক যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও ঢাকা মহানগর আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী এবং মহানগর সাধারণ সম্পাদক মোফাচ্ছির হোসাইন।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, সরকার ও প্রশাসনের উদ্দেশে কুরবানীর ছুরি নিয়ে চিন্তিত হওয়ার পরিবর্তে ক্ষমতাসীন দলের ক্যাডারদের হাতে থাকা অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার, গুলি করে মানুষ হত্যাকারী, বিভিন্ন জায়গায় ককটেল ও হাতবোমা নিক্ষেপকারী এবং বায়তুল মোকাররমে মুসুল্লীদের উপর আক্রমণের হোতাদের খুঁজে বের করা ও গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখি করার প্রতি মনোযোগ দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

তারা বলেন, বিভিন্ন মাদরাসায় কুরবানীর পশু জবাইয়ের জন্য রাখা কুরবানীর ছুরি জননিরাপত্তার জন্য কোন হুমকি নয় বরং বিভিন্ন সময়ে ক্ষমতাসীন দলগুলোর ক্যাডারদের হাতে থাকা অস্ত্রের ঝনঝনানিতে জনমনে ত্রাস, আতংক সৃষ্টি হয়েছে। ক্যাম্পাসগুলোতে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্রসংগঠনগুলোর অস্ত্রের মহড়ার খবর প্রায়ই পত্র-পত্রিকায় উঠে আসছে। দলীয় কোন্দল, ভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীদের উপর আক্রমণে এসব অস্ত্রের ব্যবহার ও প্রাণহানির ঘটনাও বিরল নয়। কিন্তু সরকার ও প্রশাসন সেগুলোকে দেখেও না দেখার ভান করে থাকে। সর্বশেষ বায়তুল মোকাররমে ছাত্রলীগ-যুবলীগের ক্যাডারদেরকে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে নিরীহ মুসুল্লীদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়তে দেখে গেছে। পক্ষান্তরে কুরবানীর ছুরি জননিরাপত্তার জন্য হুমকি হওয়া তো দূরের কথা কুরবানীর সময় ছাড়া অন্য কোন সময় এগুলো বের করাও হয় না। এমতাবস্থায়
সহিংসতার কাজে ব্যবহার হতে পারে এই আশংকায় মাদরাসা থেকে কুরবানীর ছুরি জব্দ করা মাদরাসাগুলোর প্রতি জনমনে বিরুপ মনোভাব সৃষ্টির অপচেষ্টা কিনা সেই প্রশ্ন উঠা স্বাভাবিক।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, গত ২৬ মার্চ বায়তুল মোকাররমে মুসুল্লীদের উপর অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের ক্যাডারদের আক্রমণ, ব্রাহ্মনবাড়িয়ায় মাদ্রাসায় হামলা, হাটহাজারীতে মাদরাসা ছাত্রদের উপর গুলি চালানো, এছাড়া বিভিন্ন মাদরাসায় আক্রমণ ও ভয়ভীতি প্রদর্শন এসব অপকর্ম থেকে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ঘুরিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা হিসেবেই ছুরি জব্দ এবং এক শ্রেণীর মিডিয়ায় চাতুর্যপূর্ণ শিরোনামে তা পরিবেশনের ঘটনার অবতারণা করা হয়েছে। অবিলম্বে এসব বাদ দিয়ে জননিরাপত্তার জন্য প্রকৃত হুমকি ক্ষমতাসীন দলের ক্যাডারদের হাতে থাকা অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধারে মনোযোগী হতে আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img