মঙ্গলবার, নভেম্বর ৩০, ২০২১

মুসলিম তৎপরতা রুখতে শার্লি হেবদোয় হামলা মামলার রায়ে তড়িঘড়ি করছে ফ্রান্স

ইনসাফ | নাহিয়ান হাসান

৫ বছর আগে ২০১৫ তে ফ্রেঞ্চ ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোর কার্যালয়ে এবং একটি ইহুদি সুপার মার্কেটে হামলায় সহযোগী ১৪ জনের রায়কে তরান্বিত করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে ফ্রান্স।

বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) দা প্যারিস প্যালেস ডি জাস্টিসের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা আল জাজিরায় এই সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হয়।

খবরে বলা হয়, ফ্রান্সে সাধারণ মামলাগুলোর সর্বোচ্চ আদালত এবং সবচেয়ে ব্যস্ততম আপিল আদালত দা প্যারিস প্যালেস ডি জাস্টিস আশা করছে যে, শুধুমাত্র ৩ মাসের প্রাথমিক শুনানি বিবেচনায় বুধবার বিকালের মধ্যেই তারা এর চূড়ান্ত রায় শুনিয়ে দিতে পারবে।

ফ্রান্সের প্রসিকিউটররা বলছেন, হামলায় সহযোগীদের শাস্তি স্বরূপ ৫ বছরের কারাদণ্ড অথবা মৃত্যুদণ্ডের রায়ের ব্যাপারে তারা আশাবাদী, যদিও অভিযুক্তদের মধ্যে ৩ জনের শুনানি চলছে তাদের অনুপস্থিতিতে!

ফ্রান্স যাদের বিরুদ্ধে বিচার বা রায়কে তরান্বিত করতে চেষ্টা করছে, তাদের বিরুদ্ধে শার্লি হেবদোতে হামলাকারী কাওয়াশী ভাইদের এবং সুপারমার্কেট জিম্মি করে ৪ জনকে হত্যাকারী অ্যামেডি কুলিবলিকে সহায়তার অভিযোগ রয়েছে বলে জানা যায়।

এমনকি তাদের রায়কে তরান্বিত করতে ফ্রেঞ্চ সরকার তাদের বিরুদ্ধে হামলাকারীদের অস্ত্রের জোগান, সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ও বিভিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠনের সদস্য হিসেবে থাকারও অভিযোগ আরোপ করে।

তাছাড়া, হামলার প্রধান আসামী হিসেবে আখ্যায়িত আলী রেজা পোলাত যদি দোষী সাব্যস্ত হোন তবে তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই প্রবল।

তবে বিবাদী পক্ষের আইনজীবীরা রাষ্ট্রপক্ষীয় প্রসিকিউটরদের করা মামলাকে এই বলে প্রত্যাখ্যান করেছেন যে, তাদের মামলা তাদের সাক্ষী-প্রমাণের মতোই রুগ্ন এবং উদ্ভট সব বাক্যবাণে জর্জরিত করায় ক্ষতিপূরণের ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়ে তাদের বলেছেন, তাদেরকে এমন সব অভিযোগে অভিযুক্ত করা হচ্ছে যারা তা করেই নি!

বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ ভাইরাস প্রথম যখন ছড়িয়ে পরে তখন ইসলাম ধর্ম এবং নবী (সা:)কে অবমাননার মাধ্যমে ২০১৫ সালে সহিংসতার যে সূত্রপাত ঘটেছিলো, তার বিচার স্থগিত রাখা হয়। কিন্তু গত সেপ্টেম্বরে ফের নবী (সা:) এর ব্যঙ্গাত্বক ক্যারিকেচার বা কার্টুন বানিয়ে ইসলামকে অবমাননার মাধ্যমে সহিংসতাকে আবার উসকে দেয় ফ্রেঞ্চ ম্যাগাজিন চার্লি হেবডো এবং এতে সহিংসতারা ঘটনা ঘটলে উত্তপ্ত হয়ে উঠে ফ্রান্স সহ পুরো বিশ্ব।

অপরদিকে, নবী (সা:) এর ব্যঙ্গাত্বক ক্যারিকেচার বা কার্টুন বানিয়ে ইসলামকে অবমাননার মাধ্যমে সহিংসতাকে উসকে দিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে মুসলিমদের আরো কোনঠাসা বা দমনের জন্য ফ্রেঞ্চ প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ র‍্যাডিকাল ইসলামিজম বা উগ্র ইসলামবাদ নামে কঠোর নীতিমালা প্রণয়ন করেছেন!

তাছাড়া, প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ র‍্যাডিকাল ইসলাম নামে কঠোর নীতিমালার খসড়া বিলের সমর্থন আদায়ে প্রচার করে বেড়াচ্ছেন যে, ইসলামী বিচ্ছিন্নতাবাদ জাতিকে অবনমিত করছে এবং ফ্রান্সের সেক্যুলারিজম আদর্শকে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছে।

ফ্রান্সের স্থানীয় সূত্রে আল জাজিরার খবরে বলা হয়, মূলত, শার্লি হেবদোতে সর্বশেষ হামলা ও মুসলিমদের তৎপরতা রুখে দিতেই ফ্রেঞ্চ সরকার তড়িঘড়ি করে উক্ত মামলার রায় শুনিয়ে দিতে চাচ্ছে।

উল্লেখ্য, বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ইসলাম বিদ্বেষী ম্যাক্রোঁর প্রস্তাবিত র‍্যাডিকাল ইসলামিজম আইনের ব্যাপারে বলছে যে, ফ্রেঞ্চ মুসলিমদের জন্য এই আইনটি বৈষম্যপ্রবণ।

সামনের মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ফ্রেঞ্চ সংসদের অধিবেশনে ম্যাক্রোঁ প্রণীত আইনের ব্যাপারে তুমুল বিতর্ক হতে পারে বলে ধারণা করছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ও বিশেষজ্ঞগণ।

সূত্র: আল জাজিরা।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img