ভাস্কর্যের নামে মূর্তি স্থাপন মুসলমানরা সহ্য করবে না: বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা ইসমাঈল নূরপুরী বলেছেন, সংখ্যাগরিষ্ট মুসলমানের দেশ বাংলাদেশ। এদেশে অসংখ্য অলি আউলিয়ার পদচারণা রয়েছে। মূর্তি হলো শিরক। প্রত্যেক নবী এবং রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম শিরকের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করেছেন। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় মূর্তি স্থাপনের চক্রান্ত চলছে। সুতরাং মূর্তি স্থাপন না করে ইসলামী স্থাপনা নির্মান করুন।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) রাজধানীর পুরানা পল্টনস্থ সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নির্বাহী বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মাওলানা ইসমাঈল নূরপুরী বলেন, মানুষের ভাষা বুঝুন। ভাস্কর্যের নামে মূর্তি স্থাপন করলে দেশের তাওহিদী জনতা এর বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবে। যে কোনো অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে এর দায় দায়িত্ব সরকারকেই বহন করতে হবে।

সংগঠনটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের পরিচালনায় বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন নায়েবে আমীর মাওলানা আফজালুর রহমান, মাওলানা রেজাউল করীম জালালী, মাওলানা খুরশিদ আলম কাসেমী, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন, মাওলানা কোরবান আলী কাসেমী, মাওলানা আব্দুল আজীজ, মুফতি শরাফত হোসাইন, অফিস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলনা আজিজুর রহমান হেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা এনামুল হক মুসা,

সহ-বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা নিয়ামতুল্লাহ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা হারুনুর রশীদ ভূঁইয়া, নির্বাহী সদস্য মাওলানা ইউসুফ আশরাফ, মাওলানা জসিম উদ্দীন, মাওলানা সামিউর রহমান মুসা, মাওলানা হোসাইন আহমদ, মহানগর সভাপতি মাওলানা রুহুল আমীন খান ও মাওলানা আব্দুল মুমিন প্রমূখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *