নাগার্নো-কারাবাখে সেনা মোতায়েন করছে রাশিয়া

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, নাগার্নো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান এবং আর্মেনিয়া পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হওয়ার পর সেখানে শান্তিরক্ষী পাঠাচ্ছে মস্কো। নাগার্নো কারাবাখের কন্টাক্ট লাইন বরাবর রাশিয়া এক কন্টিনজেন্ট সেনা মোতায়েন করবে।

পুতিনের এই বক্তব্য রাশিয়ার টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে সম্প্রচার করা হয়েছে।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ১৯৬০ জন সেনা এবং তাদের সাথে প্রয়োজনীয় অস্ত্র এবং সামরিক সরঞ্জামাদি পাঠানো শুরু হয়েছে।

মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, পঞ্চম আইএল-৭৬ সামরিক পরিবহন বিমানে করে রুশ সেনাদের নেয়া হয়েছে। রাশিয়ার উলাইয়ানোভস্ক-ভসতোচনি সামরিক বিমান ঘাঁটি থেকে এসব সেনাকে উড়িয়ে নাগার্নো-কারাবাখ এলাকায় নেয়া হয়।

রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আজারবাইজান এবং আর্মেনিয়া গতকাল শেষ বেলায় যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সই করে। গত মধ্যরাত থেকে যুদ্ধবিরতি চুক্তি বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে।

সর্বশেষ যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সই করেছেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশনিয়ান।

যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে তারা বলেছেন, নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করা হচ্ছে এবং মস্কো সময় রাত ১২টা থেকে সব ধরনের শত্রুতাপূর্ণ তৎপরতার অবসান হবে।

আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী সম্মত হয়েছেন যে, তার দেশ আজারবাইজানের কাছে আগামী ১৫ নভেম্বরের ভিতরে কিছু অঞ্চল ছেড়ে দেবে।

এছাড়া ১ ডিসেম্বরের মধ্যে আরো ও কিছু অঞ্চল ছাড়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *