রবিবার, আগস্ট ১, ২০২১

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার আগে ভারতে এসেছিল সেই খ্রিষ্টান সন্ত্রাসী

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে ২০১৯–এ গুলি চালিয়ে ৫১ মুসলিমকে হত্যা করার আগে আগে বিশ্বভ্রমণ করেছিল সেই হত্যাকারী খ্রিষ্টান সন্ত্রাসী ব্রেন্টন ট্যার‌্যান্ট। শুধু বিশ্বভ্রমণই নয়, হত্যালীলা চালানোর আগে সে প্রায় তিন মাস ভারতে কাটিয়ে গিয়েছিল।

মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) গুলিচালনা কাণ্ডের তদন্তে এই রিপোর্ট দিয়েছে নিউজিল্যান্ডের র‌য়্যাল কমিশন অফ এনকোয়্যারির।

এদিন পেশ করা ৭৯২ পাতার রিপোর্টে বলা হয়েছে, স্কুল পাস করার পর, অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত ব্রেন্টন ২০১২ পর্যন্ত একটি স্থানীয় জিমে ব্যক্তিগত প্রশিক্ষক হিসেবে কাজ করত। তারপর তার আঘাত লাগে এবং তখনই সে কাজ ছেড়ে দেয়। তারপর থেকে আর কোনও চাকরি করেনি ব্রেন্টন। বাবার কাছ থেকে পাওয়া টাকা এবং লগ্নি থেকে যে টাকা আয় করেছিল, সেসব নিয়ে নানা দেশ একা ঘুরে বেড়াত। ২০১৩ সালে নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া ঘোরার পর ২০১৪–১৭ পর্যন্ত বিশ্বের নানা দেশ ঘোরে। এমনকি উত্তর কোরিয়াতেও গিয়েছিল, তবে সেখানেই একটি পর্যটক দলের সঙ্গে যায় সে। সব থেকে বেশি থেকেছিল ভারতে, ১৫ এপ্রিল, ২০১৪–১৭ আগসট, ২০১৭ পর্যন্ত। তবে ওই তিন মাস ভারতে কী করেছিল ব্রেন্টন তার উল্লেখ নেই তদন্ত রিপোর্টে।

সফরকালে ভারতের কোনও সন্ত্রাসী দলের সঙ্গে তার মেশার খবর প্রকাশ না করলেও দক্ষিণপন্থী ইন্টারনেট ফোরাম বা ইউটিউব চ্যানেলের যে খ্রিষ্টান সন্ত্রাসী ব্রেন্টন নিয়মিত ভিজিটর ছিল তার উল্লেখ রয়েছে রিপোর্টে। অনাবাসী সংক্রান্ত খবরাখবর এবং ক্রিশ্চান–মুসলিমদের মধ্যে যুদ্ধের ইতিহাস নিয়েও প্রচুর পড়াশোনা করত। বহু মুসলিম নেতা, আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া এবং নরওয়ের অফিসারদের এবং নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেই এই রিপোর্ট তৈরি করেছেন গোয়েন্দারা।

সূত্র: আজকাল

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ