মঙ্গলবার, নভেম্বর ৩০, ২০২১

ব্রিটেনে ভাঙ্গনের সুর, ফের স্বাধীনতা চায় স্কটল্যান্ড

স্কটল্যান্ডের নাগরিকদের মাঝে নতুন করে স্বাধীতার দাবি মাথাচাড়া দিয়েছে। বর্তমানে ব্রিটেনের স্বায়ত্তশাসিত রাজ্যটির ৫১ থেকে ৫৯ শতাংশ মানুষই স্বাধীন স্কটল্যান্ড দেখতে চান।

২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত এক গণভোটে অবশ্য ৫৫-৪৫ শতাংশ ভোটে স্বাধীনতার দাবি প্রত্যাখ্যান করেছিল স্কটিশরা। খবর রয়টার্স-এর।

সর্বশেষ ১৪টি জরিপের ফল বলছে, বেশিরভাগ স্কটিশের মনোভাবে পরিবর্তন এসেছে। কারণ, এর আগে কখনও এত বেশি মানুষ স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা চাননি।

স্কটল্যান্ডের ফার্স্ট মিনিস্টার নিকোলা স্টারজিওনের বক্তব্যেও উঠে এসেছে বিষয়টি।

শনিবার তিনি বলেন, এর আগে কখনও ‘স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতার বিষয়ে এত বেশি নিশ্চিত তিনি ছিলেন না।’

২০১৪ সালে প্রত্যাখ্যান করলেও বর্তমানে অনেক বেশি মানুষের ব্রিটেনের সঙ্গে যুক্ত না থেকে স্বাধীনতা চাওয়ার কারণ হল- ব্রেক্সিট তথা ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়া এবং ব্রিটেনের করোনাভাইরাস মোকাবেলার পদ্ধতি পছন্দ না হওয়া। এ কারণে আবারও গণভোট আয়োজনে করে ব্রিটেন থেকে বেরিয়ে যেতে চায় স্কটল্যান্ড।

সর্বশেষ ২০১৪ সালে গণভোট দেয়া হয়। তাতে স্বাধীনতার দাবি প্রত্যাখ্যাত হলেও স্বাধীনতার পক্ষে ভোট পড়ে ৪৫ শতাংশ। এর পর থেকে ব্রেক্সিট ইস্যুতে স্কটিশরা ইইউতে থেকে যাওয়ার পক্ষে। কিন্তু ব্রেক্সিট গণভোটে পাস হওয়ার পর থেকে মানুষের মধ্যে পরিবর্তন আসতে থাকে।

যদিও শেষ পর্যন্ত আরেকটি গণভোট হয় এবং স্কটল্যান্ড ব্রিটেন থেকে স্বাধীন হয়ে যায় তবে একশ’ বছর আগে আয়ারল্যান্ডের স্বাধীনতার পর ব্রিটেনের জন্য আরেকটি বড় আঘাত।

এক সময় স্কটল্যান্ড স্বাধীন দেশ ছিল। ১৬০৩ সালে স্কটল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের রাজবংশ রাজা জ্যাকবের নেতৃত্ব একত্রিত হয়। ১৭০৭ সালে দেশ দুটির আইনসভাও একীভূত করা হয়।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img