সিলেট ও খাগড়াছড়িতে নারী গণধর্ষণের ঘটনায় আল্লামা কাসেমীর ক্ষোভ

সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর কাছ থেকে স্ত্রীকে কেড়ে নিয়ে এবং খাগড়াছড়িতে চাকমা প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের নিষ্ঠুর ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ’র মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে প্রেরিত বিবৃতিতে তিনি বলেন, আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করে আসছি যে, গণধর্ষণের এমন বর্বরতম ঘটনার প্রায় সকলক্ষেত্রেই দেখা গেছে ধর্ষকদের দলীয় পরিচয় ও রাজনৈতিক আশ্রয় আছে এবং যেকোনো ধরনের অপরাধ করে পার পেয়ে যাওয়ার একটা অলিখিত নিশ্চয়তাও তাদের মনে কাজ করে থাকে। যেকোন সভ্য সমাজের জন্য এটা ভয়াবহ উদ্বেগের বিষয়।

তিনি আরো বলেন, ২০১২ সালের ডিসেম্বরে বিশ্বজিৎ দাসকে দিনদুপুরে কুপিয়ে হত্যার সুস্পষ্ট আলামত ও প্রমাণ থাকা সত্ত্বেও আসামিদের খালাস পেয়ে যাওয়া কিংবা একের পর এক সাজাপ্রাপ্ত প্রভাবশালী খুনিদের রাষ্ট্রীয়ভাবে সাজা মওকুফ করে মুক্ত করার যে ভয়ঙ্কর সংস্কৃতি আওয়ামী লীগ চালু করেছে, তার ফলে একের পর এক হত্যা, গণধর্ষণ, সন্ত্রাস এবং সামাজিক নৈরাজ্য সৃষ্টির পথ খুলে গেছে।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী গভীর হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, সাধারণ মানুষের আইনি নিরাপত্তা, বিচার পাওয়ার নিশ্চয়তা ও সামাজিক সুরক্ষার কোন কিছুই এখন আর অবশিষ্ট নাই। এভাবে একটি রাষ্ট্র চলতে পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *