কুদসে জন্মগ্রহণকারীদের পাসপোর্টে ইসরাইলের নাম ব্যবহারের প্রতিবাদ জানাল ফিলিস্তিন

জেরুসালেমখ্যাত ফিলিস্তিনি নগরী বায়তুল মুকাদ্দাসে জন্মগ্রহণকারী মার্কিন নাগরিকদের পাসপোর্টে তাদের জন্মস্থান ‘ইসরাইল’ বলে উল্লেখ করার যে প্রকল্প ওয়াশিংটন হাতে নিয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন। ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষ বিষয়টিকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে প্রত্যাখ্যান করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ঘোষণা করেন, বায়তুল মুকাদ্দাসে জন্মগ্রহণকারী মার্কিন নাগরিকরা তাদের পাসপোর্টে জন্মস্থান হিসেবে ‘ইসরাইল’ নামটি উল্লেখ করতে পারবে। এতদিন ওই নগরীতে জন্মগ্রহণকারী মার্কিন নাগরিকদের জন্মস্থান হিসেবে ফিলিস্তিন বা ইসরাইল কোনো নামই লেখা হতো না।

ফিলিস্তিনি বার্তা সংস্থা ওয়াফা জানিয়েছে, স্বশাসন কতৃপক্ষের মুখপাত্র নাবিল আবু রাদিনা গতকাল শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) বলেছেন, বায়তুল মোকাদ্দাসে (জেরুসালেম) জন্মগ্রহণকারী মার্কিন নাগরিকদের পাসপোর্টে তাদের জন্মস্থান হিসেবে ইসরাইলের নাম উল্লেখ করা আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

এদিকে ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের মুখপাত্র হাজেম কাসেম এ ঘটনাকে ‘ইতিহাস বিকৃতি’ ও ‘সত্যের অপলাপ’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেছেন, মার্কিন সরকার কুদস দখলদার ইসরাইল সরকারকে পৃষ্ঠেপাষকতা দিয়ে শুধু ফিলিস্তিনি জাতির অধিকারই লঙ্ঘন করেনি সেইসঙ্গে প্রমাণ করেছে, আরব দেশগুলোর রাজা-বাদশাহদেরও বিন্দুমাত্র তোয়াক্কা করে না ওয়াশিংটন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *