“কওমী কল্যাণ ফাউন্ডেশন” এর উদ্যোগে আল্লামা শফী রহ. এর জীবন শীর্ষক সভা অনুষ্ঠিত

“কওমী কল্যাণ ফাউন্ডেশন” এর উদ্যোগে আল্লামা শাহ আহমদ শফী রহ. এর জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) বিকাল ৩টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ বি.এম.এ ভবনের শহীদ ডা. শামসুল আলম খাঁন মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেছেন, আল্লামা আহমদ শফী রহ. নারীদের ন্যায্য অধিকার ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা করতে আজীবন চেষ্টা করে গেছেন। তিনি ব্যাবিচার ও ধর্ষণ মুক্ত রাষ্ট্র গড়তে নারীদের আলাদা শিক্ষাব্যবস্থা ও নিরাপদ কর্মক্ষেত্র তৈরীর জন্য শাসকগোষ্ঠীকে বারবার দাবি জানিয়েছেন। তার সেই ফর্মুলার মাধ্যমেই আজকের ধর্ষণ বন্ধ করা সম্ভব।

আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী বলেন, আল্লামা আহমদ শফী রহ. শুধু বাংলাদেশের নয়, তিনি ছিলেন এশিয়া মহাদেশের মুসলিম উম্মাহর আধ্যাত্মিক রাহবার। তিনি মৃত্যু পূর্বমুহূর্ত পর্যন্ত কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণার দাবিতে আন্দোলন সংগ্রাম করে যান। আগামীতে আল্লামা আহমদ শফি রহ. এর রুহানী সন্তানেরা আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমে তা বাস্তবায়ন করবে। ইনশাআল্লাহ।

মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী কওমী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, আল্লামা আহমদ শফী রহ. ছিলেন বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর ঐক্যের প্রতিক। তিনি আমৃত্যু দ্বীনের কাজ করে গেছেন সর্ব মহলে।

তিনি বলেন, ইসলামকে বাদ দিয়ে পাশ্চাত্যের অনুসরণের ফলে আজ সমাজে মানুষ অশান্তিতে ভুগছে। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। আল্লামা আহমদ শফী রহ. আমাদেরকে যে ন্যায়-ইনসাফের তালিম দিয়ে গেছেন তা অব্যাহত রাখতে সবার প্রতি আহ্বান জানান।

মুফতী সাখাওয়াত হুসাইন রাজী বলেন, আল্লামা আহমদ শফী রহ. ছিলেন শতাব্দীর মুজাদ্দীদ। তিনি ছিলেন নাস্তিক্যবাদের বিরুদ্ধে এক মহা প্রাচীর। তার বর্ণাঢ্য জীবনের প্রতিটি দিক আমাদের অনুসরণী।

মুফতি মুহাম্মদ আরাফাত, মুফতি ইসহাক মাহমুদ ও মুফতি আল-আমিনের যৌথ সঞ্চালনায় সভায় আলোচনা পেশ করেন, মুফতি ওমর ফারুক সন্দ্বীপি, মাওলানা আহমদ আলী, মুফতি রেজাউল করীম আবরার ও কওমী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মুফতি উবায়েদুর রহমান হাম্মাদ, মুফতি ইমাম উদ্দিন, মুফতি মনজুরুল হক, মুফতি সালমান খন্দকার, মুফতি আসাদুজ্জামান প্রমুখ।

বক্তারা আল্লামা আহমদ শফি রহ. এর জীবনী রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানান। আল্লামা আহমদ শফী রহ. এর মাগফেরাত কামনা ও দেশ জাতির কল্যাণে মুনাজাতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *