শুক্রবার, জুন ২৫, ২০২১

আসসালামু আলাইকুম এর শুদ্ধ উচ্চারণকে জঙ্গিবাদের সঙ্গে আখ্যায়িত করায় অধ্যাপককে নোটিশ

‘আসসালামু আলাইকুম’ ও ‘আল্লাহ হাফেজ’ এর শুদ্ধ উচ্চারণকে জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত করার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. জিয়া রহমানকে মুহম্মাদ মাহবুব আলম নামের এক ব্যক্তির পক্ষে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মুহম্মাদ শেখ ওমর শরীফ। একই সঙ্গে তার দেওয়া বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) এই নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন ওই আইনজীবী।

নোটিশে বলা হয়েছে, ওই টিভি শো-তে জিয়াউর রহমান ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক বক্তব্য প্রদান করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮-এর ২৮ ও ২৯ ধারায় অপরাধ করেছেন। এই নোটিশ পাওয়ার দুই দিনের মধ্যে টেলিভিশন অনুষ্ঠানে ধর্ম অবমাননাকর ও বেআইনি বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট দন্ডবিধি (পেনালকোড) অনুযায়ী জিয়াউর রহমানের নামে মামলা করা হবে।

সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শেখ মুহম্মদ ওমর শরীফ বলেন, টক শো-তে ‘ধর্মের অপব্যাখ্যায় জঙ্গিবাদ’- বিষয়ক আলোচনায় মুসলিমদের শুদ্ধ উচ্চারণে “আসসালামু আলাইকুম” বলা ও “আল্লাহ হাফেজ” বলাকে গর্হিত, নিন্দনীয়, জঘন্য ব্যাখ্যা করে এসবকে জঙ্গিবাদের সাথে সম্পৃক্ত করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জিয়াউর রহমান।

কিন্তু গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৪১ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রত্যেক নাগরিকের যে কোন ধর্ম অবলম্বন, পালন বা প্রচারের অধিকার রয়েছে।

spot_imgspot_img

আরও