এটিএম হেমায়েত উদ্দিন রহ. এর জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সাবেক যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর সভাপতি অধ্যাপক হাফেজ মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন রহ. এর জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা ও দুআ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শনিবার (১৭ অক্টোবর) বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়াতনে ইসলামী যুব আন্দোলনের উদ্যোগে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইসলামী যুব আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় সভাপতি কে এম আতিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী ফয়জুল করীম।

বক্তব্যে তিনি বলেন, ইসলামপন্থার রাজনীতিতে এটিএম হেমায়েত উদ্দিন ছিলেন সর্বজনগ্রাহ্য ও বর্ষিয়ান জননেতা। তিনি আধিপত্যবাদ ও সম্প্রসারণবাদী বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা ছিলেন। ইসলাম, দেশ ও মানবতার পক্ষে সংগ্রাম করে একটি উন্নত কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখতেন তিনি। সত্যিকার নেতা বা আদর্শবান নেতা যাকে বলে তিনি ছিলেন হেমায়েত উদ্দিন। মানুষের সুখে, দু:খে ঝাঁপিয়ে পড়তেন তিনি। বর্তমান জাতির ক্লান্তিলগ্নে তাঁর মত নেতার প্রয়োজন খুব বেশি।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলনের রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, সাবেক প্রচার সম্পাদক মাওলানা সুরুজুজ্জামান, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূইয়া, নেজামে ইসলাম পার্টির যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শেখ লোকমান হোসেন, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের অর্থ সম্পাদক মাওলানা ফারুক আহমাদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, কলরবের প্রধান পরিচালক রশিদ আহমদ ফেরদৌস, দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসেন জাফরী, ইসলামী ঐক্য আন্দোলন ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবু বকর সিদ্দিক, মুসলিম লীগের প্রতিনিধি নূরে আলম, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি মানসুর আহমদ সাকী, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মুফতি জহিরুল ইসলাম, মহিলা ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি মুফতি আবু তালহা, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান, নগর দক্ষিণ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম প্রমূখ।

মরহুম এটিএম হেমায়েত উদ্দিন রহ:-এর পরিবারের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন মরহুমের একমাত্র সাহেবজাদা হাফেজ মাওলানা জিয়া উদ্দিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক মুফতী শেখ মুহাম্মদ নুরউন নাবী

অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন বলেন, হেমায়েত উদ্দিন ছিলেন দেশ ও মানবতা দরদি নেতা। মানুষের কল্যাণ করা ছিল তার অন্যতম কাজ। রাজনীতির উত্তপ্ত ময়দানে তিনি ছিলেন অত্যন্ত সাহসী ও দৃঢ়চেতা মানুষ।

এম গোলাম মোস্তফা ভূইয়া বলেন, হেমায়েত উদ্দিন ডানপন্থি, বামপন্থি, ইসলামপন্থিদের মাঝে ভেদাভেদ তুলে দিয়ে এক কাতারে শামিল করার অন্যতম পুরোধা ছিলেন। তার প্রচেষ্টায় নাস্তিক্যবাদী অনেককে নামাজ পড়তে দেখেছি।

মাওলানা শেখ লোকমান হোসেন বলেন, হেমায়েত উদ্দিন একটি নাম, একটি সংগঠন, একটি ইতিহাস। তার তুলনা তিনি নিজেই। তিনি সকল ইসলামপন্থিসহ দেশপ্রেমিক জনতার মাঝে ঐক্যের সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করেছেন।

মাওলানা ফারুক আহমদ বলেন, তিনি সাম্রাজ্যবাদ ও সম্প্রসারণবাদের বিরুদ্ধে বজ্রকঠিন ছিলেন এবং পরস্পর ছিলেন অত্যন্ত নম্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *