ইসরাইলকে স্বীকৃতির পর আমিরাতের কাছে ড্রোন বিক্রি করছে আমেরিকা

ইহুদীবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেওয়ার সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে ১৮টি অত্যাধুনিক সশস্ত্র এমকিউ-নাইন ‘বি ড্রোন বিক্রির পরিকল্পনা করেছে মার্কিন কংগ্রেস। কংগ্রেস বিষয়টি তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জানিয়েছে। যার বাজার মূল্য ২০৯ কোটি মার্কিন ডলার।

শুক্রবার (০৬ নভেম্বর) সংশ্লিষ্ট এক ব্যক্তির বরাতে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্যে ওয়াশিংটনের ঘনিষ্ঠমিত্র এবং তেল সমৃদ্ধ উপসাগরীয় রাষ্ট্রটির কাছে এফ-থার্টিফাইভ যুদ্ধবিমান বিক্রির সম্ভাব্য আলোচনার মধ্যেই ড্রোন বিক্রির বিষয় সামনে এলো।

স্নায়ু যুদ্ধকালীন আমেরিকার সহ ৩৪টি দেশের মধ্যে একটি অস্ত্র চুক্তি সই হয়। সম্প্রতি সেই চুক্তি পুনর্মূল্যায়ন করে ট্রাম্প প্রশাসন। মিত্রদের কাছে ড্রোন বিক্রির সুযোগ পায় ওয়াশিংটন। চুক্তি সংশোধনের পর প্রথম সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে ড্রোন বিক্রি করতে যাচ্ছে আমেরিকা।

রয়টার্স জানিয়েছে, মার্কিন ড্রোন কেনার জন্য অনেকদিন ধরে আগ্রহ দেখিয়ে আসছে আমিরাত। গ্রীষ্মেই মার্কিন রফতানিনীতি পরিবর্তন হয়। পরিবর্তিতনীতিতে আবুধাবি হতে যাচ্ছে ওয়াশিংটনের ড্রোন প্রথম ক্রেতা।

মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথমবারের মতো তাইওয়ানের কাছে ৬০ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের চারটি নিরস্ত্র ড্রোনসহ সশস্ত্র এমকিউ-নাইন-বি সিগার্ডিয়ান বিক্রির ঘোষণা দেয় কংগ্রেস।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রয়টার্সকে জানান, কংগ্রেস থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদ না পাওয়া পর্যন্ত প্রস্তাবিত বা নিশ্চিত হওয়া অস্ত্র চুক্তির বিষয়ে মার্কিননীতি অনুযায়ী মন্তব্য করার কোনো সুযোগ নেই।

অস্ত্র বিক্রির সঙ্গে জড়িত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ব্যক্তি বলেন, সামুদ্রিক রাডার সংযুক্ত এমকিউ-নাইন-বি ড্রোন ২০২৪ সালের মধ্যে আমিরাতের কাছে হস্তান্তর করা হতে পারে।

মার্কিন বোয়িং কো সিএ-এইটটিন’জি গ্লোলার্স, দুই সিটের ইলেক্ট্রনিক ওয়ারফার ভার্সন এফ/এ-এইটিন’এফ সুপার হরনেট এয়াক্রাফটের একটি প্যাকেজও চায় আমিরাত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *