শুক্রবার, জুন ২৫, ২০২১

৩৭০ ধারা ফিরিয়ে আনবই; না হলে নির্বাচনে লড়ব না: মেহেবুবা

কাশ্মীরের ভারতপন্থী সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও পিডিপি নেত্রী মেহেবুবা মুফতী বলেছেন, ৩৭০ ধারা ফিরিয়ে এনেই ছাড়ব, যতদিন তা না হবে নির্বাচনে লড়ব না।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই মন্তব্য করেন।

মেহবুবা মুফতী বলেন, আমি কাশ্মীর ছাড়া অন্য কোনও পতাকা তুলব না। যেসময়ে আমাদের পতাকা রাজ্যে ফিরে আসবে, আমরা সেই (জাতীয় পতাকা) পতাকাটিও উত্তোলন করব। কিন্তু যতদিন আমাদের নিজস্ব পতাকা ফিরে না পাবো ততদিন আমরা অন্য কোনও পতাকা হাতে নেব না। এই পতাকাটি আমাদের আইনের অংশ।

তিনি বলেন, বিহারের ভোট ব্যাংকের জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ৩৭০ ধারার বিষয় অবলম্বন করতে হয়েছে। দেশ অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশের পিছনে চলে গেছে। যখন ওরা কোনও বিষয়ে ব্যর্থ হয়, তারা কাশ্মীর এবং ৩৭০ ধারার মতো বিষয় উত্থাপন করেন। ওরা প্রকৃত ইস্যুতে কোনও কথা বলতে চান না। আমাদের অধিকার (৩৭০ ধারা) ফেরত না দেওয়া পর্যন্ত আমি কোনও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আগ্রহী নই। কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা পুনরুদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন শেষ হবে না। আমাদের লড়াই কাশ্মীর সমস্যা সমাধানের জন্য।

পিডিপির এই নেত্রী বলেন, চীন লাদাখে এক হাজার বর্গকিলোমিটারেরও বেশি জমি দখল করেছে। ৩৭০ ধারা অপসারণ এবং ভারতের পক্ষ থেকে যে পরিবর্তনগুলো করা হয়েছে তাতে চীন প্রকাশ্যে আপত্তি জানিয়েছে। এটা কখনই অস্বীকার করা যাবে না যে কাশ্মীর আজকের মতো আন্তর্জাতিকভাবে এত বিখ্যাত ছিল না।

মেহবুবা বলেন, গতবছর ৫ আগস্ট দিল্লি সেই সম্পর্ক ছিন্ন করেছে যার কারণে আমরা তাদের সাথে বন্ধুত্ব করেছিলাম। আমরা উদার, গণতান্ত্রিক এবং ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের সাথে হাত মিলিয়েছিলাম, কিন্তু আমরা আজকের ভারত নিয়ে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি না। আজকের ভারতে সংখ্যালঘু, দলিতরা নিরাপদ নয়। এই দেশ বিজেপির ইশতেহার অনুযায়ী চলবে না, সংবিধান অনুযায়ী চলবে।

এদিকে, ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও উগ্র হিন্দুত্ববাদী বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র সিং মেহেবুবার মন্তব্য প্রসঙ্গে বলেছেন মেহেবুবা মুফতী যখন ক্ষমতায় এসেছিলেন তিনি ‘ভারত মাতা কী জয়’ বলে শপথ নিয়েছিলেন। তিনি এখন ক্ষমতায় না থাকায় পাকিস্তানের শপথ নিচ্ছেন। আমরা গত কয়েক বছর ধরে দেখেছি যে কাশ্মীরের কথিত রাজনীতিবিদরা কখনও কখনও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের থেকেও বেশি বিপজ্জনক হন।

বিজেপি সভাপতি উগ্র হিন্দুত্ববাদী রবীন্দ্র রায়না বলেছেন, আমি লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহাজিকে অনুরোধ করব ওই রাষ্ট্রদ্রোহী মন্তব্যটি আমলে নিয়ে মেহেবুবার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা দায়ের করে তাকে কারাগারে পাঠাতে।

spot_imgspot_img

আরও