রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১

মাওলানা ড. আদিল খানকে শহীদ করার ঘটনায় আল্লামা নুরুল ইসলামের শোক

পাকিস্তান জামিয়া ফারুকিয়া করাচির প্রতিষ্ঠাতা,বুখারী শরীফের ব্যখ্যাকার শাইখুল হাদিস আল্লামা সলিমুল্লাহ খান রহ. এর ছেলে মাওলানা ডক্টর আদিল খান সন্ত্রাসীদের গুলিতে শহীদ হওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন আল-জামিয়াতুল ইসলামিয়া মাখজানুল উলূম খিলগাঁও মাদরাসার শায়খুল হাদীস ও মহা পরিচালক, আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফ্ফুজে খতমে নবুওয়ত বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূরুল ইসলাম জিহাদী।

সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, পাকিস্তানের শীর্ষ আলেমকে সন্ত্রাসি হামলায় গুলি করে শহীদ করার দ্বারা বুঝা যায় পাকিস্তানের শীর্ষ আলেমদের কোন নিরাপত্তা নেই। ক’দিন পর পরই এমন হামলার ঘটনা ঘটে। যা বড়ই দুঃখজনক। শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পাকিস্তান সরকারকে আরো কার্যকরী ভুমিকা পালন করতে হবে।

আল্লামা নূরুল ইসলাম বলেন, মাওলানা ডক্টর আদেল খাঁন রহ. অত্যন্ত সৎ ও বিনয়ী একজন মানুষ ছিলেন। তার সাথে আমার বাংলাদেশ ও পাকিস্তান সহ বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রে বহু সফর হয়েছে। মাওলানা আদিল খানের শাহাদাতে আমি গভীরভাবে শোকাহত।

খতমে নবুওয়ত মহাসচিব আরো বলেন, মাওলানা ডক্টর আদিল খাঁন করাচীর প্রসিদ্ধ মাদরাসা জামিয়া ফারুকিয়ার স্বনামধন্য মোহতামীম ছিলেন। অত্যন্ত দক্ষতা ও বিচক্ষণতার সহিত মাদরাসা পরিচালনার পাশাপাশি তিনি শানে সাহাবা নিয়ে কাজ করতেন। সাহাবায়ে কেরামের শান ও মান রক্ষায় তাঁর বহুমুখী খিদমাত ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে।

পাকিস্তান সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়ে আল্লামা নূরুল ইসলাম বলেন, যে সকল সন্ত্রাসীরা ডক্টর আদিল খাঁনকে এভাবে প্রকাশ্যে গুলি করে শহীদ করেছে অনতিবিলম্বে তাদেরকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি নিশ্চিত করুন। কিছুদিন পর পর এভাবে ওলামায়ে কেরামের উপর ন্যাক্কারজনকভাবে হামলা চরম উদ্বেগজনক। ওলামায়ে কেরামসহ সর্বসাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে না পারলে বিশ্ব দরবারে পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রশ্নের সম্মুখিন হবে। ভবিষ্যতে ওলামায়ে কেরামের উপর হামলার ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন না ঘটে সেদিক সজাগ দৃষ্টি রাখতে পাকিস্তান সরকারের প্রতি আহবান জানান তিনি।

মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে আল্লামা নূরুল ইসলাম বলেন, মহান প্রভুর দরবারে আমি দুআ করি, আল্লাহ তা’আলা তাঁর সকল দ্বীনি খেদমতকে কবুল করুন এবং ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করে জান্নাতুল ফেরদাউসের সর্বোচ্চ মাকাম দান করুন, আমিন।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img