আজারবাইজান-আর্মেনিয়া যুদ্ধে নাক গলাতে চায় ফ্রান্স

আজারবাইজান-আর্মেনিয়া যুদ্ধ যেখানে সর্ব সম্মতিক্রমে বিরতি ঘটেছে এবং আজারবাইজানের জয়জয়কার, সেখানে ফ্রান্স নতুন করে হস্তক্ষেপ করতে চায়।

নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘাতে সব পক্ষের জন্য কথিত স্থায়ী এবং ভারসাম্যপূর্ণ সমাধানে সহায়তা করতে প্রস্তুতির কথা জানিয়েছে ফ্রান্স।

এমন একসময় দেশটি এ প্রস্তাব দিয়েছে, যখন অঞ্চলটিতে রুশ মধ্যস্থতার শান্তিচুক্তি অপ্রত্যাশিত হলেও প্যারিসকে মেনে নিতে হচ্ছে।

আজারি বাহিনী ও নৃতাত্ত্বিক আর্মেনীয়দের মধ্যকার অস্ত্রবিরতির দেখভাল করতে মঙ্গলবার রুশ শান্তিরক্ষী বাহিনী এসে অঞ্চলটিতে পা রেখেছে।

এর মধ্য দিয়ে সাবেক সোভিয়েত অঞ্চলে নিজের সামরিক পদচিহ্ন প্রসারিত করল রাশিয়া। কৌশলগতভাবে অঞ্চলটিতে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা হচ্ছে।

নাগোরনো-কারাবাখ বিতর্ক নিরসনে গঠিত আন্তর্জাতিক গ্রুপের সহপ্রধানের দায়িত্ব পালন করছে মস্কো। এ ছাড়া আছে ওয়াশিংটন ও প্যারিস। কিন্তু রাশিয়ার সঙ্গে সই করা চুক্তির অংশ নয় ওই দুই পরাশক্তি।

এই চুক্তির মধ্য দিয়েই আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার ছয় সপ্তাহের লড়াইয়ের বিরতি ঘটেছে।

অপরদিকে আজারবাইজানে প্রেসিডেন্ট ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলে শুধু রাশিয়ার নয় তুরস্কের সেনাও মোতায়েন হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *