মঙ্গলবার, আগস্ট ১৬, ২০২২

হাটহাজারীতে আল্লামা শফী রহ.-কে নিয়ে ওলামা পরিষদের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

হাটহাজারী ওলামা পরিষদের উদ্যোগে শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ্ আহমদ শফী রহ. এর জীবন, কর্ম ও অবদান শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শুক্রবার (২ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত ওই আলোচনা সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব, হাটহাজারী মাদরাসার শিক্ষা পরিচালক ও শাইখুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, মহান আল্লাহ যুগে যুগে তাঁর প্রিয় বান্দাদের মাধ্যমে ইসলাম ও মুসলমানদের ব্যাপক খেদমত আঞ্জাম দিয়ে থাকেন। আল্লামা শাহ্ আহমদ শফী বাংলাদেশে ভ্রান্ত মতবাদ ও অনৈসলামিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখে গেছেন। ২০১৩ সালে ইসলামবিদ্বেষী নাস্তিক্যবাদের আগ্রাসী আস্ফালনের বিরুদ্ধে এদেশের আলেমসমাজ ও তাওহিদী জনতাকে নিয়ে ইতিহাসের নজিরবিহীন গণআন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন। যা ছিলো এক মহাজাগরণ। আমার শায়েখ ও সবার মুরুব্বী আল্লামা শাহ্ আহমদ শফীর ইন্তেকালে জাতির অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। তবে অচিরেই হুজুরের রেখে যাওয়া কর্মসূচীকে সামনে রেখে হেফাজত ও কওমী মাদরাসা সমূহকে আমরা সকলে এগিয়ে নিয়ে যাব ইন-শাআল্লাহ। এজন্য আপনাদের সকলকে ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে হেফাজতের সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা শাহ্ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেন, ইলমে হাদীস ও মাদরাসা শিক্ষার প্রচার-প্রসারে ব্রত থাকার পাশাপাশি ইসলাহী বয়ান, তাসাওফ এবং সুলুকের লাইনেও আল্লামা শাহ্ আহমদ শফি বহু খেদমত করে গেছেন। তাঁর বর্ণাঢ্য কর্মজীবন এদেশের আলেম সমাজ ও তৌহিদী জনতার জন্য এক অনুকরণীয় আদর্শ হয়ে থাকবে। আল্লাহ তা’আলা হযরতের ত্র“টি-বিচ্যুতিগুলো ক্ষমা করুন, আখিরাতের দারজাত বুলন্দ করে দিন এবং জান্নাতুল ফিরদাউসে উচ্চ মাকাম নসীব করুন। আমীন।

ওলামা পরিষদের সহসভাপতি মাওলানা মোহাম্মদ শফির সভাপতিত্বে ও হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান,ওলামা পরিষদের সিনিয়র সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা নাছির উদ্দীন মুনীর, যুগ্ম সম্পাদক মাওলানা মীর ইদরীস, যুগ্ম সম্পাদক মাও. মোঃ জাহাঙ্গীর আলম মেহেদীর যৌথ সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, হাটহাজারী মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মাওলানা শেখ আহমদ, সিনিয়র মুহাদ্দিস মাওলানা মোঃ ইয়াহইয়া, পটিয়া মাদরাসার মঈনে মুহতামিম মাওলানা আবু তাহের নদভী, নাজিরহাট বড় মাদরাসার পরিচালক আল্লামা মুফতী হাবিবুর রহমান কাসেমী, চারিয়া মাদরাসার পরিচালক মাওলানা আব্দুল্লাহ হারুন, মেখল মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক মুফতী মুহাম্মাদ আলী কাসেমী, বাথুয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস আল্লামা জাফর আহমদ।

বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ড. আ.ফ.ম. খালিদ হোসাইন, শায়েখ মুফতী হারুন ইজহার, মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা খোবাইব, মাওলানা আবু তৈয়ব আব্দুল্লাহপুরী, মাওলানা হাবিবুল্লাহ আজাদী, মাওলানা জাহেদুল্লাহ, মুফতী সিরাজুল্লাহ, মাওলানা ফরিদ দারুল মাআরিফ, হাফেজ তৈয়ব, মাওলানা ইব্রাহীম, মাওলানা নছিম, মাওলানা মুস্তফা, মাওলানা শিহাব উদ্দীন, মাওলানা মাহমুদ শাহ্, মুফতী হোসাইন, মাওলানা ক্বারী ফজলুল করিম ও মাওলানা জামাল উদ্দীন।

এছাড়াও এতে আরও উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী, মাওলানা মাহমুদুল হোসাইন, মাওলানা আনোয়ার শাহ্ আযহারী, মাওলানা মোঃ শফিউল আলম, মাওলানা নজরুল ইসলাম চাঁদগাজী ও মাওলানা কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

spot_img
spot_img
spot_img

সর্বশেষ