Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/insaf24net/public_html/wp-content/themes/infinity-news/inc/breadcrumbs.php on line 252

সাফলতা ও বিশ্বস্ততার স্বাক্ষর রেখে ইনসাফের অর্ধযুগ পূর্তি!

বুরহান রাব্বানী | মৌলভীবাজার, সিলেট


বর্তমানে আমরা যে সময়টা অতিক্রম করছি, বলতে দ্বিধা নেই যে এটা তথ্য-প্রযুক্তির সময়। জ্ঞান-বিজ্ঞানের সময়। প্রগতিপন্থীরা প্রযুক্তির অপব্যবহার করে মুসলিম উম্মাহকে আজ ভ্রষ্টতার বেড়াজালে আবদ্ধ করছে। নির্মূল-নিঃশক্তি করে ফেলতে চায় ওরা ইসলামকে।

২০১৩ সালের ৫ই মে’র শাপলার ট্রাজেডির কথা কারো অজানা নয়। নজিরবিহীন এক ইতিহাস সৃষ্টি হয়েছিল সেদিন। মজলুম মুসলমানদের বিব্রতকর অবস্থা করেছিল নাস্তিক মুরতাদরা। কিন্তু আফসোস ও অনুতাপের বিষয় হলো, মিডিয়া অঙ্গনে আলেম-উলামাদের অবস্থান বলতে গেলে ছিলই না। বাহিরের মানুষ জানতেও পারেনি স্পষ্টভাবে তাঁদের কার্যক্রম সম্পর্কে।

সে সুযোগে নাস্তিক-ব্লগারেরা কালো মিডিয়াগুলোতে উলামায়ে কেরামগণের গঠিত অরাজনৈতিক আন্দোলনকে রাজনৈতিক আন্দোলন বলে সাধারণ মুসলিম আমজানতার মাঝে ছড়িয়ে দেয়। সাধারণদের মাঝে তাদের প্রতি হিংসা বিদ্বেষ ছড়াতেও তারা কোন কমতি রাখেনি। উলামায়ে কেরামগণের তখন কোন কিছু করার ছিল না।

কারণ জনসম্মুখে ইসলামের বার্তা দ্রুত পৌঁছানোর পথ ছিল না তাদের আয়ত্ত্বে। যার কারণে অনেক ঝড়-ঝাপটার সম্মুখীন হতে হয়েছে তাদের।

ঠিক এক বছর পর ২০১৪ সালের ৫ই মে শাপলার শূন্যতাকে উপেক্ষা করে, আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির শূন্যতা পূরণ করার লক্ষে দেশের শীর্ষ স্থানীয় আলেমদের তত্ত্বাবধানে ইনসাফ নামক সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক ইসলামি ঘরানার এক মিডিয়ার পথ চলা শুরু হয়।

এই মিডিয়াটি পরিচালিত হয় সম্পূর্ণ আলিমদের তত্ত্বাবধানে। এখানে যেমন কাজ করেন মাদরাসা অঙ্গনের তরুণগণ। তেমনই কাজ করেন ভার্সিটি অঙ্গনের ভাইগণ। নতুন উদ্যমে শুরু হয় তাদের পথচলা।

তাদের উদ্দেশ্য –
★ সত্যকে সত্য এবং মিথ্যাকে মিথ্যা প্রমাণ করে উম্মাহের সামনে পেশ করা।

★ নির্যাতিত নিষ্পেষিত মুসলমানদের আর্তনাদ জনসম্মুখে তুলে ধরা।

★ কালো পর্দার আড়ালে লুকিয়ে থাকা মিথ্যুকদের মুখোশ উন্মোচন করা।

★ নাস্তিক্যবাদদের চেলেঞ্জিং’র মোকাবেলা করা।

এক কথায় সর্বাঙ্গে সর্বাবস্থায় উম্মাহের সামনে সত্যকে তুলে ধরা এবং মিথ্যা প্রতিহত করাই তাদের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

আজ সাফল্য ও বিশ্বস্ততার স্বাক্ষর রেখে অর্ধযুগ অতিক্রান্ত করে ফেলেছে “মিডিয়া ইনসাফ”। ৭ম বছর চলছে এই গণমাধ্যমের এই মিডিয়াটির। লক্ষাধিক পাঠক-দর্শকদের হদয়ে স্থান করে নিয়েছে প্রিয় এই প্রতিষ্ঠান ও তাতে নিবেদিত-প্রাণ জনদরদি আস্থাবাজন প্রিয় ব্যক্তিরা। আগামী প্রজন্মে ইনসাফের মতো এমন আরো অনেক ইসলামি মিডিয়ার প্রয়োজন। সব শূন্যতা যেন পূর্ণ করে দেন রাব্বে কা’বা।

অবশেষে বলি!!

ইনসাফকে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে সর্বদা যাদের চেষ্টা-সাধনা ছিল এবং অব্যাহত, আল্লাহ তায়ালা সকলকে জাযায়ে খাইর দান করুন এবং যুগ যুগ ধরে আপনারা আমাদের মাঝে সত্যের পয়গাম নিয়ে আসুন।
সকলকে আল্লাহ তাওফিক দান করুন। ইনসাফ তুমি সত্য ন্যায়ের কণ্ঠস্বর। আধারে আলো ফোটাও তুমি। নতুন প্রভাত উপহার দেয়া তোমার কাজ তুমি হাজারো হৃদয়ের স্পন্দন। কোটি জনতার আস্থা তোমার উপর। যুগ যুগ বেঁচে থাকো লক্ষ মানবাত্মার “ছামিমে ক্বালবে”।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *