বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

মাদরাসা ও সাধারণ শিক্ষিতদের সমন্বয়ে গণমাধ্যমের পথচলার প্রথম সাক্ষী ইনসাফ

হাফেজ মাওলানা ক্বারী নাজমুল হাসান | প্রিন্সিপাল : তাহফিজুল কুরআন ওয়াসসুন্নাহ মাদ্রাসা ও প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান : তাহসিন ইন্টারন্যাশনাল হিফজ মাদ্রাসা


দেশের ইসলামী ঘরানার সর্বপ্রথম গণমাধ্যম ইনসাফ। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশে সবসময় সচেতন থাকা এ পত্রিকাটি ২০১৪ সাল থেকে নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে পত্রিকাটি অর্ধযুগের মাইলফলক অতিক্রম করেছে। এ উপলক্ষে ইনসাফ এবং তারসাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন।

শূন্য থেকে শুরু করে ইনসাফ আজ ৭ম বছরে উপনীত হয়েছে। ইনসাফ পরিবার শুধু একটি পরিধিতেই নিজেদের কাজকে সীমাবদ্ধ রাখেনি। এযাবৎকাল পর্যন্ত বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি ইসলামেরও বহু কাজ করেছেন তাঁরা।

সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি ইনসাফ-শো নামে যুগান্তকারী বেশ কিছু অনলাইন টকশো করেছে ইনসাফ। ভিডিও সংবাদ পরিবেশনে মাধ্যমে গণমাধ্যমের ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে এই মিডিয়াটি। মাদরাসা ও সাধারণ শিক্ষিতদের সমন্বয় করে গণমাধ্যমের পথচলার প্রথম সাক্ষী সম্ভবত ইনসাফই।

একটা সময় এদেশে ইসলামপন্থীরা অবহেলিত ছিলো। কুরআনের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের সন্তানগণ বহুবার বিশ্বরেকর্ড করা সত্ত্বেও দেশের মিডিয়াগুলো মূল্যায়ন করার মতো বিষয় মনে করেনি।
এরপর সময় পাল্টেছে। ২০১৪ সালে ইনসাফের যাত্রা শুরু হলো। সততা, সাহসিকতা ও আদর্শের উপর অবিচল থেকে ইনসাফ ইসলামী ঘরানার একমাত্র মুখপাত্র হয়ে জনমনে জায়গা করে নিলো। একই পথের অনুস্মরণ করে আজ ইসলামী ঘরানার বহু মিডিয়া তৈরি হয়েছে। আজ ইসলামী অঙ্গন আর অবহেলিত নয়। কারো তামাশার পাত্র নয়।

ষষ্ঠ বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে ইনাফের প্রতি শুভকামনা থাকবে- শুধু ৬ বছর নয়, হাজার বছর নিষ্ঠার সঙ্গে নেতৃত্ব দিয়ে যাক ইনসাফ সেই কামনা করি।

সম্পাদক সাইয়েদ মাহফুজ খন্দকারসহ ইনসাফ পরিবারের প্রতি আমার আন্তরিক ভালবাসা, অভিনন্দন ও শুভকামনা।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img