Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/insaf24net/public_html/wp-content/themes/infinity-news/inc/breadcrumbs.php on line 252

ভারতকে ঠেকাতে ভয়াবহ কৌশল নিচ্ছে চীন-পাকিস্তান সেনাবাহিনী

ভারতকে ঠেকাতে ভয়াবহ কৌশল নিচ্ছে চীন-পাকিস্তান সেনাবাহিনী। পাকিস্তান ও চীন তাদের দ্বিপাক্ষিক প্রতিরক্ষা সহযোগিতা আরো সম্প্রসারণ করার প্রেক্ষাপটে একটি যৌথ সামরিক গঠনের লক্ষ্যে কাজ করছে বলে আভাস পাওয়া গেছে। দুই দেশের সঙ্গে সীমান্তে বিরোধ রয়েছে ভারতের।

পাকিস্তান নৌবাহিনীর জন্য একটি টাইপ-০৫৪এ/পি ফ্রিগেট পানিতে ভাসিয়েছে চীনের রাষ্ট্রায়ত্ব হুদং ঝংহুয়া শিপইয়ার্ড কোম্পানি লি.। সাংহাইভিত্তিক এই কোম্পানি পাকিস্তানের জন্য আরো তিনটি অত্যাধুনিক যুদ্ধজাহাজ নির্মাণ করছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে এগুলো পাকিস্তান হাতে পাবে।

ইসলামাবাদে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আসন্ন সফরকালে পাকিস্তান সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীকে আরো সামরিক হার্ডওয়্যার সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিতে পারে বেইজিং। এটা হবে করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর কোন বন্ধু রাষ্ট্রে তার দ্বিতীয় সফর। গত জানুয়ারিতে মিয়ানমার সফর করেন শি। চীন ও পাকিস্তান একটি যৌথ সামরিক কমিশন গঠনের প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করছে। এতে পাকিস্তান সেনাবাহিনী ও চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) সহযোগিতা আরো জোরদার হবে।

সম্প্রতি চীনে দ্বিপাক্ষিক কৌশলগত সংলাপে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশিকে স্বাগত জানান তার প্রতিপক্ষ ওয়াং ইয়ি। দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক ছিলো মূলত চীনা প্রেসিডেন্টের পাকিস্তান সফরের আয়োজন সুসম্পন্ন করতে।

জানা গেছে, চীনা প্রেসিডেন্টের ইসলামবাদ সফরকালে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও পাকিস্তান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল কমর জাভেদ বাজওয়ার সঙ্গে তার যে বৈঠক হবে তার একটি ফলাফল হতে পারে যৌথ সামরিক কমিশন।

তবে চীন বা পাকিস্তান এখনো সফর সম্পর্কে কিছু বলেনি।

চীন ও পাকিস্তানের সামরিক সহযোগিতার উপর তীক্ষ্ণ নজর রাখছে নয়া দিল্লী। একটি সূত্র বলে, ভারতের সামরিক পরিকল্পনাবিদদের জন্য দুই ফ্রন্টে সামরিক সংঘাতের সম্ভাবনা একটি ফ্যাক্টর।

যৌথ সামরিক কমিশন বাস্তবে রূপ নিলে সেটা পাকিস্তান সেনাবাহিনী ও পিএলএ’র মধ্যে অভিযানগত সমন্বয়ের একটি মেকানিজম হিসেবে কাজ করতে পারে।

ভারত ও অস্ট্রেলিয়া সামরিক লজিস্টিকস শেয়ারিং চুক্তি স্বাক্ষরের কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পাকিস্তান ও চীনের ওই উদ্যোগের কথা জানা গেলো।

সূত্র; সাউথ এশিয়ান মনিটর ও ডিএইচএনএস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *