Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/insaf24net/public_html/wp-content/themes/infinity-news/inc/breadcrumbs.php on line 252

উপদেষ্টা পরিষদ চেয়ারম্যানের বাণী

আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী | উপদেষ্টা পরিষদ চেয়ারম্যান : ইনসাফ


আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে দেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম ষষ্ঠ বর্ষ পূর্ণ করে সপ্তম বছরে পদার্পণ করেছে।

ষষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ইনসাফের সকল পাঠক, শুভাকাঙ্খীদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ।

বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাই ইনসাফের সম্পাদক, উপদেষ্টা সম্পাদক, সংবাদ কর্মী, পরিচালনা পর্ষদ ও উপদেষ্টা পরিষদের সকল সদস্যকে। তাদের নিরলস প্রচেষ্টায় দেশের প্রথম ইসলামী মিডিয়া আজ অর্ধযুগ পূর্ণ করতে পেরেছে।

বর্তমান বিশ্বে মিডিয়ার গুরুত্ব অনেক। মিডিয়া এতই শক্তিশালী যে, যেকোনো মূহুর্তে প্রেক্ষাপট পরিবর্তন করতে সক্ষম। বর্তমানে বাতিল তাগুতী গোষ্ঠী মিডিয়া ও শিক্ষা-সংস্কৃতিকে ব্যবহার করে ইসলামের উপর আঘাত করছে। ইসলামের উপর বাতিল গোষ্ঠী কীভাবে, কোন পথে আঘাত করছে তা আমাদের উপলব্ধি করে সেভাবেই মোকাবেলা করতে হবে।

ইহুদি, খৃস্টান ও ইসলাম বিদ্বেষীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা চলমান মিডিয়ার মোকাবেলায় গোটা মুসলিম উম্মাহর উপর কর্তব্য হলো বাস্তবমুখী তথ্য নির্ভর শক্তিশালী ইসলামী মিডিয়া তৈরী করা। শুধু উলামায়ে কেরাম নয়; যারা আল্লাহ ও তার রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহী ওয়া-সাল্লামকে বিশ্বাস করে, ভালোবাসে, তাদেরও কর্তব্য ইসলামী মিডিয়াকে শক্তিশালী করা।

আলহামদুলিল্লাহ। আমাদের এই ইসলামী মিডিয়ার প্রয়োজন কিছুটা হলেও ‘ইনসাফ’ পূরণ করতে সক্ষম হয়েছে। ইসলামী মিডিয়ার কাঙ্খিত লক্ষ্য পূরণে ২০১৪ সালের ৫ মে পত্রিকাটি যাত্রা শুরু করে। ‘ইনসাফ’ ইসলামী মিডিয়া জগতে একটি বিপ্লবের নাম। একটি ইনকিলাবের নাম। ‘ইনসাফ’ প্রতিনিয়ত বাস্তবসম্মত, তথ্য নির্ভর ও ইনসাফি’আতের ভিত্তিতে সংবাদ প্রচার করে আসছে। সম্পাদক প্রিয় সাইয়েদ মাহফুজ খন্দকারের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে নিবেদিতপ্রাণ কর্মীদের দ্বারা সংবাদ, প্রতিবেদন, ভিডিও শো, সাক্ষাৎকার ও প্রবন্ধ ইত্যাদি প্রকাশের মাধ্যমে ইতিমধ্যে পাঠকের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

উলামায়ে কেরামের প্রতি অনুরোধ; আপনার শ্রম, মেধা, পরামর্শ ও অর্থ দিয়ে ইনসাফের সহযোগিতায় এগিয়ে আসুন। আপনার আমার সহযোগিতা যদি না থাকে, তাহলে ইনসাফের পরিচালনা পর্ষদের পক্ষে একা প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা সম্ভব হবে না।

পরিশেষে বলবো, ১৪ সালের দিন আর আজকের দিনটি এক নয়। আজ এ দেশে ইসলামী মিডিয়ার একটি শক্তিশালী অবস্থান তৈরী হয়েছে। আমরা যদি মিডিয়ায় আরো অগ্রগামী হই, ইসলামী মিডিয়াকে উন্নত করতে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে আসি, তাহলে কোনো বাঁধাই আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছতে আটকাতে পারবেনা। ইন শা আল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *