Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/insaf24net/public_html/wp-content/themes/infinity-news/inc/breadcrumbs.php on line 252

ইনসাফ পরিবার মহাসংগ্রামের একটি বিজয়ী কাফেলা

কাজী হামদুল্লাহ | পরিচালক, প্রবচন মিডিয়া


সময়ের সাথে সংগ্রাম করে চলা মানে নতুন সময়কে নির্ধারণ করা। এটা আত্মবিশ্বাসীরা মনে করেন বলে আমার বিশ্বাস। বাংলাদেশের মুসলমানরা গত কিছুদিন বা কিছু বছর আগে এমনই কিছু সংগ্রামী সময়ের মুখোমুখী হয়েছিল। একদিকে ইসলামবিদ্বেষীদের প্রচণ্ড তাণ্ডব, অপরদিকে বিভিন্ন স্তরে নিজেদের শুন্যতা আমাদেরকে আঁধারে ঠেলে দিচ্ছিলো। সেই অন্ধকারাচ্ছন্ন সময়ের সাথে সংগ্রাম করার মত একদল উদ্যমী মানুষের খুবই প্রয়োজন ছিল তখন। প্রয়োজন ছিল শূন্যতা দূরীভূতকারী একটি কাফেলা।

কথায় আছে না, সময় সময়কে ডেকে আনে? আমাদের ক্ষেত্রেও তেমনি হয়েছে। ২০১২/১৩ সালের বাংলাদেশ কেমন ছিল, তা আর নতুন করে বলার বা লেখার কিছু নেই। তবে মুসলমানদের হৃদয়ে ছিল হাহাকার। মুসলমানদের জন্য সময়টা ছিল ভয়ংকর। একদিকে ইসলামবিদ্বেষীরা তবলা খুলেছিলো, অন্যদিকে তথাকথিত হলুদ মিডিয়া ধরেছিলো নাচন। সেই নাচে উম্মাদ প্রায় হয়ে উঠেছিলো এদেশের আপমর জনতা।

জাতির সেই কঠিনতম সময়টাতেই সময়ের সাথে সংগ্রাম করতে প্রস্তুত হয়ে দাঁড়িয়ে যায় অসংখ্য উদ্যমীরা। যার যা সাধ্য আছে, সে সেভাবেই সংগ্রামে অবতীর্ণ হয়। কেউ রাজনীতির মাঠে, কেউ রক্তভেজা ঘাটে। কেউ কলবে আর কেউ কলমে। কেউ উত্তপ্ত মরু হেঁটে এবং কেউ বা ইন্টারনেটে।

আজ ইনসাফ পরিবার প্রতিষ্ঠার ষষ্ঠ বছরে পদার্পণ করেছে। অসংখ্য উদ্যমীদের মাঝে আমাদের শূন্যতা দূর করতে যারা ইন্টারনেটের পথে হেঁটেছে, যারা মিডিয়ায় আমাদের সিনা টান করিয়েছে, ইনসাফ কাফেলা তেমনি একটি নাম।

দারুল উলুম মুঈনুল হাটহাজারী সেই সময়টাতে ছিল সকল সংগ্রামীদের কেন্দ্রভূমি। ২০১২/১৩ সালের তিক্ত অভিজ্ঞতার পরে সেই দারুল উলুমেই আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় ইনসাফের পথচলা। চলতে চলতে তারা ছয়টি বছর অতিক্রম করেছে।

একজন ভাবুক মিডিয়াকর্মী হিসেবে অন্তত এতটুকু আঁচ করতে পারি যে, এই ছয় বছরে তারা হাজারো সংগ্রাম ও মহাসংগ্রামে অবতীর্ণ হয়েছিল। লক্ষ-কোটি সর্বগ্রাসী যোদ্ধার সাথে তাদেরকে মোকাবিলা করতে হয়েছে। তারপরও ষষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে তাদের বেশ কিছু আয়োজন আমরা দেখছি। আমার মনে হয় এটাই তাদের যুদ্ধজয়ের নিশানা। এটাই প্রমাণ করেছে যে, আজ ইনসাফ পরিবার একটি বিজয়ী কাফেলা। ইনসাফের এই সফলতায় তাদেরকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

তবে হ্যাঁ, পৃথিবীর ইতিহাসে যুদ্ধ বা সংগ্রাম কখনোই শেষ হয়নি। কিয়ামত পর্যন্তও সংগ্রাম কখনো শেষ হবে না। এমনকি পৃথিবীর অন্তও হবে একটি বৃহৎ সংগ্রামের মাধ্যমেই। আশা করবো সেই সংগ্রামে অবতীর্ণ হবার জন্যও ইনসাফ প্রস্তুতি নেবে এবং প্রস্তুত করবে এদেশের লক্ষ-হাজার মুসলিম তাওহিদী জনতাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *