রবিবার, অক্টোবর ১৭, ২০২১

ইনসাফ আমাদের চাওয়াকে পাওয়ায় পরিণত করেছে

সুলতান মাহমুদ বিন সিরাজ


একটা সময় ছিলো যখন দেখতাম বামপন্থী বা পশ্চিমা মিডিয়াগুলো ইসলামের বিরুদ্ধে উঠেপড়ে লেগেছে। মানুষের সামনে ইসলামকে বাজেভাবে উপস্থাপন করছে। কিন্তু ইসলামী কোনো মিডিয়া না থাকায় তাদের সাথে মোকাবেলা করা যাচ্ছে না। তখন আফসোস করে বলতাম, হায় আমাদের কোনো মিডিয়া নেই! আজ যদি আমাদের অঙ্গনে ইসলামী সাংবাদিকতার চর্চা থাকতো, তাহলে ঐ তাগুতের গোষ্ঠীকে আমরা লিখনির মাধ্যমে পরাজিত করতাম! এ চিন্তা সবসময় মাথায় ঘুরপাক খেতো। অপেক্ষা করতাম, কেউ কি আসছে ইসলামী মিডিয়া শক্তি নিয়ে? কেউ কি শুনছে আমাদের হৃদয়ের কাকুতি?

আলহামদুলিল্লাহ, দীর্ঘ অপেক্ষার প্রহর কেটে ঘোর অমানিশায় উদিত হলো নতুন এক সূর্য। সম্ভাবনাময় একটি নাম ইনসাফ। আমরা আশাবাদী হলাম। বিগত ছয় বছর থেকে ইনসাফ আমাদের চাওয়াকে পাওয়ায় পরিণত করেছে। আমাদের অপূর্ণতাকে পূর্ণ করে দিয়েছে। ইনসাফ এখন ইসলামী অঙ্গনের একটি আস্থা ও বিশ্বাসের ঠিকানা। আমরা বুক উঁচিয়ে বলতে পারি, আমাদেরও এখন মিডিয়া আছে।

আমরা দেখেছি, ইনসাফ আত্মপ্রকাশের পর থেকে বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যবহুল সংবাদ পরিবেশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। তাঁর সৃজনশীল কাজে পাঠকমহল মুগ্ধ। ইনসাফ এদেশের তৌহিদী জনতার একটি বিপ্লবী চেতনার নাম।

ইনসাফের সবচে’ ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজন ‘ইনসাফ শো’ সবার মতো আমাদেরও প্রভাবিত করেছে। দেশের বড় বড় ওলামায়ে কেরাম এতে অংশগ্রহণ করেন। আমরা অনুপ্রাণিত হই।

ইনসাফ এর সবচে’ ভালো দিক হলো, সে তার আদর্শিক অবস্থানে অটল। কোনো কিছুর কাছে বিক্রি হয়নি। ইসলামী মিডিয়ার আইডল ইনসাফের ছয় বছরের অর্জনে আমরা মোবারকবাদ জানাই।
ইনসাফ এগিয়ে যাক লক্ষপানে। আলো ছড়াক হৃদয়ে হৃদয়ে। ইসলামী বিপ্লব ঘটাক লিখনির মাধ্যমে। দু’আ ও শুভ কামনা সবসময়।

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img