রবিবার, অক্টোবর ১৭, ২০২১

অর্ধ যুগপূর্তিতে ইনসাফ-এর প্রতি মাসিক মদীনা পরিবারের প্রত্যাশা

আহমদ বদরুদ্দীন খান | সম্পাদক : মাসিক মদীনা


ইনসাফ তাদের চ্যালেঞ্জিং পথচলার অর্ধযুগ সাফল্যের সাথে পূর্ণ করেছে। মিডিয়া আগ্রাসনের এই যুগ সন্ধিক্ষণে ইসলামী ভাবধারা অক্ষুন্ন রেখে তাদের এ পথচলা নিঃসন্দেহে গৌরবের। ইনসাফের এই সাফল্যে মাসিক মদীনা পরিবারের পক্ষ থেকে আমরা তাঁদের প্রতি আন্তরিক মোবারকবাদ জানাই।

বর্তমান নাজুক সময়ে ইসলামী চেতনায় সমৃদ্ধ একটি মিডিয়া দেশ-জাতি ও উম্মাহর কল্যাণে যে অসাধারণ অবদান রাখতে পারে, সে ধারণা আমাদের অনেকের মাঝে নেই বলেই আমরা আজ সীমাহীন দুর্গতির শিকারে পরিণত হয়েছি। আধুনিক গণমাধ্যম নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা বর্তমান পরিস্থিতিতে আমাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হওয়া উচিৎ ছিল। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আজও আমাদের মাঝে সেই চেতনা গুরুত্ববহ হয়ে উঠেনি। আমাদের অভিভাবকগণ আজও মিডিয়া-বিমূখ।

পশ্চিমা দুনিয়া তথা আধুনিক গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় মিডিয়াকে যেমনিভাবে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে, ঠিক তেমনি আমাদের উচিৎ ছিল ইসলামের দৃষ্টিকোণ থেকেও কোরআন, সুন্নাহ্, ইজমা ও কিয়াসের পর শক্তিশালী গণমাধ্যমকে দ্বীনের পঞ্চম গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ হিসেবে বিবেচনা করা। কেননা, দ্বীনের উল্লেখিত স্তম্ভগুলোর সবগুলোই প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে রেওয়ায়াত তথা এক প্রকার মিডিয়ার বদৌলতেই আমরা লাভ করেছি।

বলাবাহুল্য যে, শক্তিশালী গণমাধ্যম নির্মাণের প্রতি অসচেতনতা ও উদাসীনতার কারণেই আমরা আজ আমাদের পূর্ব পুরুষদের অনেক মূল্যবান ইলমী ওরাসাত তথা গবেষণা-আবিস্কার হারিয়ে ফেলেছি। অন্যদিকে মিডিয়া দৈন্যতার কারণে মানবতার কল্যাণে আমাদের পূর্বপুরুষদের অনেক সাফল্যই আজ ছিনতাই হয়ে গেছে, নয় হারিয়ে গেছে। অতএব আমাদের উচিৎ অনতিবিলম্বে প্রকৃত ইসলামী চেতনায় সমৃদ্ধ শক্তিশালী গণমাধ্যম নির্মাণের প্রতি মনোযোগী হওয়া। অন্যথায় অচিরেই আমরা শক্তিশালী গণমাধ্যমের অভাবে বড় ধরণের বিপর্যয়ের সম্মুখিন হবো। কারণ, আমাদের অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, ইসলামের দৃষ্টিতে শক্তিশালী গণমাধ্যমের গুরুত্ব অপরিশীম। কেননা, নায়েবে নবীর দায়িত্ব আঞ্জাম দেয়ার জন্য তথা ইসলামী তাহ্যীব-তামাদ্দুন সমাজ ও রাষ্ট্রে প্রচার প্রসার এবং প্রতিষ্ঠা করার জন্য দ্বীনী চেতনায় লালিত শক্তিশালী ও সর্বাধুনিক গণমাধ্যমের কোনই বিকল্প নেই। আর সেই গুরুত্বের প্রতি ইঙ্গিত করেই আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জীবন সায়াহ্নে সর্ববৃহৎ জনসমাবেশে উপস্থিত সাহাবায়ে কেরাম রাদিয়াল্লাহু আনহুম ও অনাগত উম্মতের প্রতি এই সুস্পষ্ট নির্দেশনা দিয়ে গেছেন যে: “আমার পক্ষ থেকে একটি মাত্র বাক্য হলেও তোমরা অন্যদের কাছে পৌছে দিও।”

আর নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের এই গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনার প্রতি আন্তরিকভাবে দায়বদ্ধ থেকে ইনসাফ মুসলিম উম্মাহর সমৃদ্ধ আগামী বিনির্মাণে তাদের শক্তিশালী ভুমিকা অব্যাহত রাখবে- অর্ধযুগ পূর্তিতে এটাই ইনসাফের কাছে আমাদের প্রত্যাশা।

২৪ রমযান ১৪৪১ হিজরী

spot_img
spot_imgspot_img

সর্বশেষ

spot_img
spot_imgspot_img
spot_imgspot_img